বাবরি মসজিদ নিয়ে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রতিবাদে জামায়াতের বিক্ষোভ

Nov 12, 2019 08:33 pm

বাবরি মসজিদ নিয়ে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রতিবাদে জামায়াতের বিক্ষোভ

অযোধ্যার বাবরি মসজিদকে কেন্দ্র করে প্রদত্ত ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের ন্যায়ভ্রষ্ট রায়ের প্রতিবাদে ও অবিলম্বে পুনঃনির্মাণের দাবীতে আজ মঙ্গলবার রাজধানীর প্রাণকেন্দ্র গুলিস্তান এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহকারী সেক্রেটারি এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি গুলিস্তানের ফুলবাড়িয়া মোড় থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে এক সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিন বলেন, ভারত নিজেদেরকে ধর্মনিরপেক্ষ দাবী করলেও বাবরি মসজিদকে কেন্দ্র করে প্রদত্ত রায়ে প্রমাণিত হয় প্রকৃত পক্ষে তারা উগ্র হিন্দুত্ববাদী ও মুসলিম বিদ্বেষী।

সর্বোচ্চ আদালত একদিকে বলছে মন্দির ভেঙ্গে মসজিদ তৈরী করা হয়েছে এমন কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি অথচ সেই জমিতে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে মুসলমানদের কীর্তিকে মুছে ফেলার প্রয়াস চালানো হয়েছে।

বাবরি মসজিদের মামলায় ন্যায়ভ্রষ্ট রায়ের মাধ্যমে মুসলমানদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। তিনি অবিলম্বে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষের নিকট আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের কর্মপরিষদ সদস্য শামছুর রহমান, কামাল হোসাইন, শ্রমিক নেতা আব্দুস সালাম, ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি দেলওয়ার হোসাইন ও আব্দুল জাব্বার, অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান, ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের মজলিশে শুরা সদস্য এড. জসিম উদ্দিন তালুকদার, নজরুল ইসলাম, আবু মাহি, শেখ আল আমিন, মতিউর রহমান, ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন হেলালী, ঢাকা মহানগর পূর্বের সভাপতি হাফিজুর রহমান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি ফয়সাল আমিন প্রমুখ।

এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিন বলেন, ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে রাম মন্দির নির্মাণের রায় দিয়ে মূলত মুসলমানদের অন্তর ভেঙে দিয়েছে। যে মসজিদে ৫০০ শত বছর ধরে নিয়মিত জামায়াতে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে সেখানে হঠকারী এ রায়ে প্রমাণ হয় ভারত ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র নয়।

তিনি বলেন, তারা ঘোষণা করেছে বাবরি মসজিদের স্থলে রাম মন্দির নির্মাণ করা হবে। যা কিছুতেই মেনে নেয়া যায় না। আমাদের প্রাণের দাবী অবিলম্বে ঐতিহাসিক বাবরী মসজিদ নিয়ে বিতর্কিত এ রায় বাতিল করতে হবে। ভারতীয় সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী রাজনৈতিক শক্তির জোরে জাতিসংঘ কর্তৃক ঘোষিত ধর্মীয় ও মানবাধিকার সনদ লংঘন করে বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে দিয়ে মুসলমানদের ধর্মীয় অধিকারের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করেছে।

তিনি আরো বলেন, এতে মুসলিম উম্মাহ মর্মাহত ও উদ্বিগ্ন। রায়ে বাবরি মসজিদের পরিবর্তে অন্যত্র পাঁচ একর জমি দানের যে কথা বলা হয়েছে তা মুসলমানদের প্রতি চরম উপহাসের শামিল।

তিনি ঈমানের দাবীতে এহেন অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও ভারত সরকারকে চাপ প্রয়োগের মাধ্যমে ন্যায়বিচার সু-নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ সহ সকল মুসলিম রাষ্ট্র প্রধান ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর প্রতি আহবান জানান। বিজ্ঞপ্তি।